বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়ানোর বিকল্প নেই: হোসেন জিল্লুর রহমান

অর্থীনিতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেছেন, অভিবাসন বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ খাত। বছরে ২০ লাখের মতো কর্মী আমাদের শ্রম বাজারে আসেন। এতো লোকের কর্মসংস্থান কোনভাবেই দেশে অভ্যন্তরে সম্ভব নয়। এই বিশ লাখ লোকের ৩০-৪০ ভাগ লোক দেশের বাইরে গিয়ে কর্মসংস্থান খুঁজে নিচ্ছে। অভিবাসন খাত এই জায়গায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। বাংলাদেশের অন্যান্য খাতের মতো এই খাতটি বড় হয়ে উঠেছে। এর পেছনে প্রধান শক্তি হচ্ছে সাধারণ মানুষ বা সাধারণ অভিবাসিরা। দেশের এই সাধারণ শ্রমিকরাই সাহস করে খোঁজ-খবর নিয়ে দেশের বাইরে যাচ্ছেন। এই অভিবাসিরা মাঝে মাঝে ঝুঁকি নিয়েও দেশের বাইরে যাচ্ছে। তাদের এই চেষ্টার কারণে বাংলাদেশের অভিবাসি খাতটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান লাভ করেছে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সন্মেলন কেন্দ্রে রামরু আয়োজিত অভিবাসন সম্মিলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, দুঃখজনক ব্যাপার হচ্ছে অভিবাসীদের পাঠানো অর্থ নিয়ে আমরা যত আলোচন করি তাদের প্রয়োজনগুলো নিয়ে আমাদের মনযোগ কম। যদিও এখন আস্তে আস্তে এদিকে আমরা খেয়াল করছি। তাদের পাঠানো অর্থই আমাদের অর্থনীতির চালিকা শক্তি হিসেবে কাজ করছে। তা নিয়ে আমরা কথা-বার্তা বলি সেমিনার করি কিন্তু যাদের শ্রমের কারণে এই অর্থ আসছে তাদের বিষয়গুলো এখানো অপূরণীয় রয়ে যাচ্ছে। তাই এদিকে খেয়াল দেয়ার এখনই সময়। এর জন্য আমাদের একটি শক্তিশালী জায়গা তৈরি করা দরকার। শুধু সরকারের কাছে দাবি করলে হবে না। এর পিছনে একটি শক্তি থাকতে হবে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের অন্যান্য খাতগুলোর মতো আমাদেরকেও একটি বাস্তববাদী চিন্তা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। এখানে স্বল্প মেয়াদি, দীর্ঘ মেয়াদি, মধ্য মেয়াদি পরিকল্পনা নিতে হবে। তিনটি যায়গায় আমাদের এই উদ্যোগগুলো দ্রুত প্রয়োজন। সেগুলো হলো : অভিবাসনে যাওয়ার প্রক্রিয়া আরো সহনীয় আরো ঝুঁকি মুক্ত করতে হবে। দ্বিতীয় হচ্ছে, কর্মস্থলে রাষ্ট্রীয় সহায়তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দেশের অভিবাসিরা এই সহায়তা পাচ্ছে না। এর জন্য কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। তৃতীয়ত, অভিবাসীদের দেশে ফেরার প্রক্রিয়াকে আরো সহজ করতে হবে। এখানো এই শ্রমিকরা বিমান বন্দরে হেনস্তার স্বীকার হচ্ছেন। যাদেরকে আমরা সোনার মানুষ বলছি। যাদেরকে আমরা অর্থনীতির চাকা বলছি। তাদেরকে কেন আমরা অধিকার দিবো না।

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>