মিথ্যা মামলায় বেগম জিয়ার শাস্তি হলে রাজনৈতিক শক্তি দিয়ে মোকাবেলা করা হবে: মোঃ শাহজাহান

শুভ মাহফুজ : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সরকারের তৈরি করা রায়ে বেগম খালেদা জিয়ার শাস্তি হলে রাজনৈতিক শক্তি দিয়ে মোকাবেলা করা হবে বলে জানিয়েছেন, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান। টিভিএনএ’কে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য এটি একটি উদ্ভট মামলা। এর সাথে বেগম জিয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। কারন যে ট্রাস্টের নামে মামলা হয়েছে। সে ট্রাস্টের টাকা বেগম জিয়া রিসিভও করেন নাই এবং এর সাথে ওনার কোনো ব্যক্তিগত সম্পর্কও ছিল না। বেগম জিয়াকে রাজনৈতিকভাবে ঘায়েল করা এবং তার ভাবমূর্তি নষ্ট করার উদ্দেশ্য নিয়েই এই মামলাটা পরিচালনা করা হয়েছে।

মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, এই মামলাটি ১/১১ এর সময় করা হয়েছে, যে সময় শেখ হাসিনার বিরুদ্ধেও কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অনেকগুলো মামলা হয়েছিল। আর সে মামলায় তার বিপক্ষে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরাও সাক্ষী দিয়েছিল। এখন ক্ষমতার দাপটে নিজেদের মামলাগুলো বাদ দিয়েছে আওয়ামীলীগ। একটা মাদ্রাসায় কোর্ট বসিয়ে সেখানে নিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সনকে অপমানিত করা হচ্ছে। কিন্তু বেগম জিয়া গণতন্ত্রের নেত্রী হওয়ায় আইনের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করে মামলা মোকাবিলা করেছেন।

বেগম জিয়ার এই উপদেষ্টা বলেন, মামলার সাক্ষীর জেরা, বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্য এবং উকিলদের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে সাধারণ মানুষ বুঝতে পেরেছে এই মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা হওয়ার কোনো প্রশ্নই উঠে না। ৮ তারিখে বিচারক যদি তার বিবেক এবং আইন অনুযায়ী মামলার মেরিটের উপর নির্ভর করে রায় দেন তাহলে বেগম জিয়া নিঃসন্দেহে এই মামলা খালাস পাবেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের বিচার বিভাগের উপর সরকারী হস্তক্ষেপ থাকার কারনে বিচারকরা স্বাধীনভাবে বিচার করার ক্ষমতা রাখে না। সরকারের নির্বাহী বিভাগের অধীনে থেকে বিচার বিভাগকে তার কার্যক্রম পরিচালনা করতে হয়। যেখানে বিচারকরা নির্বাহী বিভাগের নির্দেশের বাইরে গিয়ে কি ভাবে সঠিক রায় দিবেন এ নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে জনমনে।

মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, শেখ হাসিনা তার ক্ষমতাকে আরো দীর্ঘস্থায়ী করার জন্য যে উদ্দেশ্যে বেগম জিয়াকে অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে জেলে পাঠানোর চেষ্টা করছে। এতে বেগম জিয়ার সাময়িক কষ্ট হলেও মূলত শেখ হাসিনা সরকারের পতন আরো ত্বরান্বিত হবে।

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>