বেগম জিয়াকে ছাড়া নির্বাচন হতে পারে না : জয়নাল আবদিন ফারুক

এ জেড ভূঁইয়া আনাস : নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপির সাংগঠনিক তৎপরতা দীর্ঘদিন থেকে শুরু হয়েছে। বেগম জিয়া নির্বাচনকালীন সরকারের রুপরেখা দিবেন। এই রুপরেখার আলোকে সকল দলের অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা। তবে এর আগে বেগম জিয়াকে শাস্তি দিয়ে নির্বাচনের বাইরে রাখা হলে বিএনপি নির্বাচনে যাওয়া প্রশ্নই উঠে না। বিএনপি আন্দোলনের মাধ্যমেই এই সংকটের মোকাবেলা করবে। টিভিএনএ’র সাথে একান্ত আলাপে এসব কথা বলেন, সাবেক চিফ হুইফ ও বিএনপি নেতা জয়নাল আবদীন ফারুক।

তিনি বলেন, বেগম জিয়ার মামলার বিষয়টি আদালতের উপর নির্ভর করছে। আমাদের আইনজীবীরা আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেছেন। এতে সারা বাংলাদেশের আইন বিশেষজ্ঞ থেকে সাধারণ মানুষ সবাই মনে করে বেগম জিয়া খালাস পাবেন। তবে বিচারপতি সরকারের চাপে পড়ে যদি বিচারকার্য পরিচালনা করলে মামলার রায় ভিন্ন হতে পারে। এতে বিএনপি সংগঠনিক শক্তি দিয়ে তা মোকাবেলা করবে।

জয়নাল আবদীন বলেন, এই সরকার আইনের শাসনে কথা বলছে, বিচার বিভাগকে স্বাধীন বলছে কিন্তু তাদের কাজে প্রমাণিত হয়েছে দেশের বিচার বিভাগ স্বাধীন নয়। তাই আমরা এই রায় নিয়ে এখানো সন্দিহান। এই রায়কে ঘিরে বিএনপির কোন প্রস্তুতি নেই। বিএনপি একটি নির্বাচনমূখী দল। আমরা রায়কে নয়, আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালে নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করেনি। কেন করেনি তা জনগণ দেখেছেন। অনেকে বলছেন নির্বাচনে না গিয়ে বিএনপি ভুল করেছে। মূলত বিএনপির সিদ্ধান্তই সঠিক ছিলো। নির্বাচনে গেলে ফলাফল একই হতো। এই সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়, এটা দেশের জনগণ বুঝে নিয়েছে।

জয়নাল আবদীন বলেন, আগামী ডিসেম্বরে নির্বাচন। আ.লীগ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর আমরা নির্বাহী কমিটির মিটিং করবো তাও আমাদের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। একের পর এক স্থান বাতিল করা হচ্ছে। তাহলে এদের অধীনে জনগণ কেমন নির্বাচন আশা করবে। রায়কে ঘিরে সরকারি দলের নেতারা যেসব বক্তব্য দিচ্ছেন তাতে শালীনতা বজায় রাখা উচিৎ। বিএনপি একটি নির্বাচনমূখী বৃহৎ দল। এটি কোন সন্ত্রাসী দল নয়। যে তারা সহিংস কোন আন্দোলন করবো। গত কয়েক দিন আগে পুলিশের উপর যে হামলা হয়েছে এটা বিএনপির কাজ হতে পারে না। এটা অন্য কেউ করে বিএনপির ঘাড়ে দোষ চাপাতে চাচ্ছে। এই ইস্যুকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতাকর্মীদের ধরপাকড় করা হচ্ছে। বিএনপির নেতাকর্মীরা ৫ জন একত্রিত হলেও পুলিশ লাঠিচার্জ করছে। এটা কেমন স্বাধীনতা। সরকার প্রশাসনের উপর নির্ভর করে দেশ চালাচ্ছে। সকল কাজে প্রশাসনকে ব্যবহার করছে। তবে প্রশাসন আগামীতে নিরপেক্ষ অবস্থান নিবে এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা।

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>